“বিদ্যুৎ বিভাগের সমন্বয় সভা প্রথমবারের মতো ভিডিও কনফারেন্সিং-এর মাধ্যমে”

ঢাকা-২৮.০৫.২০১৭

আজ বিদ্যুৎ ভবনে বিদ্যুৎ বিভাগের সমন্বয় সভা প্রথমবারের মতো ভিডিও কনফারেন্সিং-এর মাধ্যমে করা হলো। বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ ভিডিও কনফারেন্সিং উদ্বোধনকালে বলেন, ভিডিও কনফারেন্সিং-এর মাধ্যমে সভা করতে পারলে সময় বাঁচবে। বেশি সময় অফিস-এ দেয়া যাবে। 

প্রতিমন্ত্রী বলেন, আমরা ইআরপি (ERP) তে যাচ্ছি। ই-ফাইলিং তার প্রথম পদক্ষেপ। ই-ফাইলিং এ প্রতিষ্ঠান সমূহের অগ্রগতি সন্তোষজনক নয়। জুনের মধ্যে পুরোপুরি ই-ফাইলিং-এ যাওয়ার জন্য নির্দেশ দিয়ে বলেন, শুধু আইটি (IT) বিভাগেরই নয়, উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের এ বিষয়ে প্রশিক্ষণ নেয়া প্রয়োজন। তিনি এ সময়, গ্রাহকদের বিতরণ সংস্থাগুলোর সমস্যা বা অবস্থা বা লোড শেয়ারিং সংক্রান্ত তথ্য এসএমএসের মাধ্যমে জানানোর নির্দেশ প্রদান করেন। তিনি জানতে চাইলে ভিডিও কনফারেন্সিং এর অপর প্রান্ত থেকে আরইবি‘র চেয়ারম্যান জানান বর্তমানে ১ কোটি ৯০ লক্ষ গ্রাহকের মধ্যে ৭০ লক্ষ গ্রাহক এসএমএস পায়। আগামী মাসের মধ্যে ৭০% আরইবি‘র গ্রাহক এসএমএস পাবে। ডিপিডিসি‘র ১০ লক্ষ ৭২ হাজার গ্রাহকের মধ্যে ৭ লক্ষ ২৫ হাজার গ্রাহক, বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডের ২৫ লক্ষ গ্রাহকের মধ্যে ৩ লক্ষ ৭২ হাজার, ওয়েষ্ট জোন পাওয়ার ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানির ৯ লক্ষ ৮৫ হাজার গ্রাহকের মধে প্রায় ২ লক্ষ, ডেসকোর ৮ লক্ষ ১৪ হাজার গ্রাহকের মধ্যে ৫ লক্ষ ৮০ হাজার গ্রাহক এসএমএস পায়। নেসকোর ১২ লক্ষ ৫০ হাজার গ্রাহকেরা এখনো কেউ সেভাবে এসএমএস পাচ্ছে না। 

সমন্বয় সভায় এ্যানোয়াল পারফরম্যান্স এগ্রিমেন্ট, ই-ফাইলিং, এসএমএস-এর মাধ্যমে গ্রাহক সেবা, নতুন বিদ্যুৎ সংযোগ,সিষ্টেম লস,বকেয়া বিদ্যুৎ বিল আদায়,আন্তঃ সংস্থা দেনা-পাওনা, ওভারলোডেন ট্রান্সফরমার, বিদ্যুৎ সাশ্রয়, বিদ্যুৎ সেবা সংক্রান্ত বিষয়ে জনমত যাচাই, অডিট আপত্তি ইত্যাদি বিষয় নিয়ে বিশদভাবে আলোচনা করা হয়। 

বিদ্যুৎ সচিব ড. আহমদ কায়কাউস বলেন, চট্টগ্রামে প্রি-পেমেন্ট মিটার দেয়ায় ৫% সিস্টেম লস কমেছে। প্রি-পেমেন্ট মিটার পদ্ধাতি প্রতিটি বিতরণ সংস্থা দ্রুত গতিতে বাস্তবায়ন করতে হবে। বিদ্যুৎ সাশ্রয় কার্যক্রমে জনসংযোগ বাড়াতেও বিতরণ সংস্থালোকে তিনি অনুরোধ করেন। 

বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী বলেন, গ্রাহক সন্তষ্টির জন্য আমরা কাজ করছি। সেবা নিয়ে গ্রাহকদের কাছে যান, সমস্যা থাকলে তাদের জানান। এতে স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা বৃদ্ধি পাবে, দূর্নীতি কমবে। যা সরকারের অন্যতম লক্ষ। নতুন সংযোগে অহেতুক হয়রানি না করার নির্দেশ দিয়ে বলেন, রাজউকের নির্দেশনা অনুসারে আবাসিক ও বাণিজ্যিক সংযোগ দিন। এ সময় তিনি গ্রাহক সন্তষ্টি (Customer Satisfaction) নিয়ে একটি জরিপ পরিচালনার জন্য পাওয়ার সেলের মহাপরিচালক মোহাম্মদ হোসেনকে নির্দেশ প্রদান করেন। 
 
সভায় অন্যান্যের মাঝে বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডের চেয়ারম্যান খালেদ মাহমুদ সহ  বিদ্যুৎ বিভাগের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।