সমন্বিত পরিকল্পনার মাধ্যমে গ্রাম ও শহরের আধুনিকায়ন করা হবে -বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী

বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বলেছেন, সমন্বিত পরিকল্পনার মাধ্যমে গ্রাম ও শহরের আধুনিকায়ন করা হবে। পরিবেশবান্ধব ও উন্নতর স্থাপনা নির্মাণে স্থপতিদের পেশাদারিত্বের সাথে দেশপ্রেমের সমন্বয় করে কাজ করা প্রয়োজন। বাড়ি-ঘর যেন বিদ্যুৎ সাশ্রয়ী হয়।

 প্রতিমন্ত্রী গতকাল (১০/০৩/২০১৭) গাইবান্ধায় “ফেন্ডশীপ সেন্টার” নামক এনজিও পরিদর্শনকালে এ সব কথা বলেন। তিনি বলেন, গ্রামে আধুনিক সুযোগ-সুবিধা বৃদ্ধি করে শহরের আধুনিকায়ন করা হচ্ছে। ২০২১ সালের মধ্যে বাংলাদেশ মধ্যম আয়ের দেশ হবে এবং প্রতিটি ঘরেই বিদ্যুৎ ও আধুনিক সুযোগ-সুবিধা থাকবে।

 উল্লেখ্য যে  “ফেন্ডশীপ সেন্টার” ও স্থপতি কাশেফ মাহমুদ চৌধুরীকে ২০১৬ সালের জন্য আগা খান এওয়ার্ড প্রদান করা হয়েছে। ৬৯টি দেশের ৩৪৮টি প্রকল্প হতে বাংলাদেশের দুজন স্থপতিকে এ পুরুস্কার প্রদান করা হয়। অপর স্থপতি হলো মিজ মারিনা তাবাসসুম।স্থপতি কাশেফ মাহমুদ চৌধুরী ও স্থপতি মারিনা তাবাসসুমকে আগাখান ডেভোলপমেন্ট নেটওয়ার্ক ঢাকায় সংবর্ধনা প্রদান করেছেন।

 

পরিদর্শনকালে অন্যানের মাঝে “ফেন্ডশীপ সেন্টার” –এর প্রতিষ্ঠাতা ও নির্বাহি পরিচালক রুনা খান ও ইতালির রাষ্ট্রদূত মারিও পলমা   বক্তব্য রাখেন।